অরূপ ভট্টের ওয়াইফাই জোন

দেখবেন হারুনের টি স্টল থেকে হোসেনের মুদি দোকান পর্যন্ত রাস্তার দু’ধারে অসংখ্য ইয়াংবয়সী ছেলে। প্রত্যেকেই হাতে স্মার্টফোন নিয়ে উবু হয়ে বসে আছে।

জুঁই

যখন ট্রেন ছাড়ল, আমার জানালা ঘেঁষে প্লাটফর্ম ধরে হাঁটতে হাঁটতে কথাটা ও বলল। “যদি আর খোঁজ না থাকে, ঠিক দশ বছর পর এই তারিখে এই স্টেশনের ওভারব্রিজে থেকো, বিকেল পাঁচটায়।”